পাটিসাপটা পিঠা

কেনা পছন্দ করে শীতের পিঠা। যা দেখলেই সবার জিবে জল এসে যায়। তাই এই শীতে বানিয়ে ফেলুন মজাদার পাটিসাপটা পিঠা।

উপকরণঃ

  • চাউলের গুঁড়ো —————————————- ১ কাপ
  • ময়দা —————————————————— ১/২ কাপ (ময়দা না দিলেও হবে ,শুধু চাউলের গুঁড়ো দিয়েও হবে )
  • চিনি ——————————————————- ৪ চামচ
  • লবণ —————————————————— ১/৪ চামচ
  • খেজুরের গুড় ——————————————- ৬ টেবিল চামচ (অল্প পানির সাথে চুলায় জাল দিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে )
  • পানি —————————————————— পরিমান মতো (১ কাপ এর মত )
  • দুধ ——————————————————— ১ লিটার (ফুল ক্রিম )
  • সাদা এলাচ ———————————————- ২ টি

রন্ধন প্রণালীঃ

প্রথমে একটা বড় বাটিতে ১ কাপ চাউলের গুঁড়ো, ১/২ কাপ ময়দা, চিনি ২ চামচ ও লবন ১/৪ চামচ নিয়ে সব গুলো উপকরণ খুব ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

এখন ৬ চামচ খেজুর এর গুড়ের অর্ধেকটা এই মিশ্রনের মধ্যে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এখন এর মধ্যে নরমাল পানি অল্প অল্প করে ঢেলে একটা ব্যাটার তৈরী করতে হবে। ব্যাটার টা খুব ঘনও হবে না আবার পাতলাও হবে না। এখানে আমার প্রায় এক কাপ এর মতো পানি লেগেছে। এরপর এক ঘন্টার জন্য রেস্ট এ রেখে দিতে হবে।

এখন খিরসা বানানোর জন্য একটা বাটিতে ২ চামচ চাউলের গুঁড়ো নিয়ে তাতে ১/৪ কাপ দুধ নিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিতে হবে। এখন ১ লিটার দুধের বাকি দুধটুকু একটা প্যান এর মধ্যে ঢেলে চুলায় মিডিয়াম হিট এ বসিয়ে দিতে হবে। দুধের বলক আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে এর মাঝে ২ থেকে ৩ বার নেড়ে দিতে হবে। দুধের বলক আসার পরে ২ টা ফেটে রাখা এলাচ দিয়ে দিতে হবে। আর ও কিছুক্ষণ জ্বাল দেওয়ার পরে দুধ টা যখন কমে প্রায় অর্ধেক হয়ে আসবে তখন এর মধ্যে ২ চামচ চিনি দিয়ে দিতে হবে।

এখন ভালো ভাবে নেড়ে চিনি টা মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর চুলার জ্বালটা কমিয়ে দিতে হবে। এরপর দুধে মেশানো চাউলের গুঁড়ো চামচ দিয়ে নেড়ে দুধের মধ্যে আস্তে আস্তে ঢেলে দিতে হবে। ঢালার সময় অবশ্যই নাড়তে হবে। এরপর দুধ ঘন হয়ে আসলে অনবরত নাড়তে হবে, তাছাড়া নিচে লেগে যেতে পারে। এরপর দুধ টা চার ভাগ এর এক ভাগ করে ফেলতে হবে। চুলার জ্বাল একদম লো তে থাকবে। বাকি যে ৩ চামচ গুড় ছিল ঐটা এখন এই ক্ষীরসার মধ্যে ঢেলে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর চুলার জ্বাল আবার বাড়িয়ে মিডিয়াম আচে রাখতে হবে। গুড়ের পানিটা শুকিয়ে গেলে ক্ষীরসা চুলা থেকে নামিয়ে রাখতে হবে।

এরপর রেস্ট এ রাখা ব্যাটার টা একটু নেড়ে নিতে হবে। যদি মনে হয় যে ব্যাটার টা ঘন হয়ে গিয়েছে তাহলে একটু পানি মিশিয়ে নিতে হবে। ঘন না হলে পানি মেশানোর দরকার নেই।এখন চুলায় একটা ফ্রাই প্যান বসিয়ে চুলার আঁচ মিডিয়াম করে দিতে হবে। হালকা গরম হয়ে গেলে কিচেন টাওয়াল দিয়ে একটু তেল দিয়ে ফ্রাই প্যান মুছে নিতে হবে। এভাবে প্রতি বার পিঠা ভাজার আগে কিচেন টাওয়েল দিয়ে তেল দিয়ে মুছে নিতে হবে।

এখন একটা কাপ এ ব্যাটার নিয়ে প্যান এ ঢেলে দিতে হবে। ব্যাটার ঢালার সাথে সাথে প্যান টা ঘুরিয়ে চারদিকে যতটা সম্ভব পাতলা করে ছড়িয়ে নিতে হবে। এখন চুলার আঁচ একদম লো তে থাকবে। কিছুক্ষন পর পিঠার রং টা যখন চেঞ্জ হয়ে যাবে তখন একপাশ থেকে ক্ষীরসা বসিয়ে দিতে হবে। এখন একটা চামচ দিয়ে যে পাশে ক্ষীরসা বসানো আছে সে পাশ থেকে পিঠাটা উল্টিয়ে চেপে চেপে ঘুরিয়ে দিতে হবে। পিঠাটা উল্টানোর পর আরও ১ মিনিট এর মতো এপিঠ ওপিঠ ভেজে নিতে হবে। এইভাবে সব গুলো পিঠা ভাজতে হবে।

তাহলেই হয়ে যাবে মজাদার পাটিসাপটা পিঠা।

About the author

Nazneen Aktar

View all posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।